সুনামগন্জে লকডাউন অমান্যকারীদের জেল-জরিমানা

প্রকাশিত: ৭:২৯ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ৪, ২০২১
সুনামগঞ্জে মুষলধারে বৃষ্টির মাঝে তৃতীয় দিনে লকডাউনের বিধিনিষেধ অমান্যকারীদের গুণতে হয়েছে জরিমানা, যেতে হয়েছে কারাগারে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া যারা ঘর থেকে বের হয়েছেন, তাদেরকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানায় পড়তে হয়েছে। এদিকে এত টহল, তদারকির মাঝেও জেলায় শনিবার (৩ জুন) করোনাভাইরাসে শনাক্তের হার ছিল ২৭ দশমিক ৩৮ শতাংশ।
শনিবার জেলা প্রশাসনের দেয়া তথ্যমতে, গেল ২৪ ঘণ্টায় সুনামগঞ্জে নতুন করে আরও ২৩ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। ৮৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২৩ জনের শরীরে ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া যায়। পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ২৭ দশমিক ৩৮ শতাংশ।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, সংক্রমণের এ ঊর্ধ্বগতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সরকারের দেওয়া সপ্তাহব্যাপী কঠোর লকডাউন কার্যকর করতে মাঠে রয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীসহ ভ্রাম্যমাণ আদালত। গেল ৩ দিনে সুনামগঞ্জে সরকারি বিধিনিষেধ অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে ৩৪৪টি মামলায় ৩৫৩ জনকে ২ লাখ ৬১ হাজার ৪০৩ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।
এর মধ্যে লকডাউনের প্রথমদিনে জরিমানা করা হয় ১২২ মামলায় ১২২ জনকে। এদিন এই মামলাগুলোর মাধ্যমে জরিমানা আদায় করা হয়েছে ৬৩ হাজার ৫০ টাকা। দ্বিতীয় দিনে জরিমানা করা হয়েছে ৮৫ জনকে। লকডাউন অমান্যকারী এ ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ৮৩টি মামলা দিয়ে ১ লাখ ১ হাজার ৭০০ টাকা জরিমানা করা হয়।
শনিবার তৃতীয় দিনেও ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান অব্যাহত ছিল। এদিন ১৩৯টি মামলায় জরিমানা করা হয়েছে ১৪৬ জনকে। জরিমানা দেওয়া ব্যক্তিদের কাছ থেকে আদায় করা হয়েছে ৯৬ হাজার ৬৫৩ টাকা। এছাড়া এদিন তাহিরপুরের জয়নগর গ্রামের আরিফ আহমদ নামের এক ব্যক্তিকে একদিনের বিনাশ্রম কারাগারে পাঠিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।
সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসনের অতিরিক্ত ম্যাজিস্ট্রেট আল ইমরান রুহুল ইসলাম এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণরোধে সরকারের এক সপ্তাহের কঠোর লকডাউন কার্যকর করতে মাঠে রয়েছে ২১টি ভ্রাম্যমাণ আদালত। সামনের দিনেও লকডাউন কার্যকর করতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।