পরিমনির ফেসবুক স্ট্যাটাস; সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড়

প্রকাশিত: ৫:০৮ অপরাহ্ণ, জুন ১৯, ২০২১

বিনোদন ডেস্ক: অনন্য এক নজির সৃষ্টি করলেন ঢালিউডের আলোচিত-সমালোচিত চিত্রনায়িকা শামসুন্নাহার স্মৃতি ওরফে পরীমনি। সোশ্যাল মিডিয়ায় স্ট্যাটাস দিয়ে তিনি জানালেন, তার পিরিয়ড চলছে। পরীমনিই বাংলাদেশের একমাত্র অভিনেত্রী, যিনি এমন সাহসিকতা দেখালেন।

এর আগে একাধিক অভিনেত্রীকে পিরিয়ড সংক্রান্ত বিজ্ঞাপনচিত্রে অংশ নিতে দেখা গেছে। তবে পরীমনি বাস্তবেই জানালেন তার পিরিয়ড হওয়ার খবর। শুক্রবার রাতে এই অভিনেত্রী তার ‘স্মৃতি পরী মণি’ নামের ব্যক্তিগত ফেসবুক পেজে স্ট্যাটাস দিয়ে লেখেন, ‘অতি উৎসুক জনতাগণ, আমার কাশি-গলা ব্যথা হয়নি, আমার পিরিয়ড হয়েছে। সাথে জ্বরও…ধন্যবাদ।’

এই পোস্ট দেখার পর পরীমনিকে সাবধানে থাকতে বলেছেন তার সোশ্যাল মিডিয়ার ভক্তরা। কেউ আবার তার শরীরের যত্ন নেয়ার কথা বলেছেন। পাশাপাশি বহু নেটিজেন নায়িকার এই পোস্টের নিচে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন। কেউ কেউ আবার দিয়েছেন ‘হা হা’ রিঅ্যাক্ট। এর আগে শুক্রবার সন্ধ্যায় পরীমনি গণমাধ্যমকে জানান, তিনি জ্বরে আক্রান্ত। গত কয়েকদিনের মানসিক চাপে তিনি বিধ্বস্ত। নানা ধকল পোহাতে হয়েছে তাকে। যার জেরে তিনি শারীরিক ভাবে ভিষণ অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। এবার সেই খবরের সঙ্গে জানালেন পিরিয়ড হওয়ার খবর।

গত ৯ জুন মধ্যরাতে সাভারের বোট ক্লাবে যৌন হেনস্তা ও মারধরের শিকার হন পরীমনি। ঘটনার চারদিন পর গত রবিবার সংবাদ সম্মেলন করে প্রকাশ করেন সবকিছু। পরের দিন সোমবার সাভার মডেল থানায় মামলাও করেন। পরীমনির মামলা গুরুত্বের সঙ্গে নিয়ে ওই দিনই মামলার প্রধান আসামি ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন মাহমুদ ও অমিসহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। বর্তমানে তারা রিমান্ডে রয়েছেন। গ্রেপ্তারের সময় মাদক উদ্ধার হওয়ায়, তাদের বিরুদ্ধে মাদক আইনেও মামলা হয়েছে।

এদিকে, বোট ক্লাবের ঝামেলার মধ্যে আবার গুলশানের অল কমিউনিটি ক্লাবে ভাঙচুরের অভিযোগ উঠেছে পরীমনির বিরুদ্ধে। ক্লাব কর্তৃপক্ষ গত বুধবার সংবাদ সম্মেলন করে এই অভিযোগ করে। তারা জানায়, গত ৮ জুন গভীর রাতে পরীমনি তার কয়েকজন সঙ্গী নিয়ে ক্লাবে যায়। কিন্তু রাত বেশি হওয়ায় এবং ড্রেস কোড না মানায় সেখানে তাদের ঢুকতে বাধা দেয়া হয়। এর পরই সেখানে ভাঙচুর করেন নায়িকা।

তবে এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন পরীমনি। তিনি দাবি করেছেন, এটা তার বিরুদ্ধে একটা গভীর ষড়যন্ত্র। বোট ক্লাবে তাকে যৌন হেনস্তা ও হত্যাচেষ্টার ঘটনা ধামাচাপা দিতে একটা মহল পরিকল্পিতভাবে এই অভিযোগ তুলেছে। নইলে এক সপ্তাহেরও বেশি সময় আগে ঘটে যাওয়া ঘটনা এখন কেন সামনে আসবে। ওই ক্লাবে তিনি ভাঙচুর করেননি বলেও দাবি করেন অভিনেত্রী। যদিও অল কমিউনিটি ক্লাবের ওই ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো সাধারণ ডায়েরি (জিডি) বা মামলা হয়নি বলে জানিয়েছে গুলশান থানা পুলিশ। তারা এও জানিয়েছে, অভিযোগ পেলে পরীমনির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। সূত্র: সি. প্র.