মালয়েশিয়ায় পাসপোর্ট ও ভিসা জটিলতায় পড়েছেন প্রবাসীরা

প্রকাশিত: ১০:৪১ পূর্বাহ্ণ, জুন ৭, ২০২১

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের মধ্যে মালয়েশিয়ায় পাসপোর্ট ও ভিসা জটিলতায় পড়েছেন অনেক প্রবাসী। সময়মতো পাসপোর্ট না পাওয়ায় বৈধতা নিয়ে দেখা দিয়েছে সংশয়। তবে কুয়ালালামপুরের বাংলাদেশ হাইকমিশন বলছে, প্রবাসীদের সেবায় সার্বক্ষণিক কাজ করছেন তারা।

করোনা নিয়ন্ত্রণে গেলো বছরের মার্চ থেকে কঠোর অবস্থানে মালয়েশিয়া। টানা লকডাউনের মধ্যেও সরকারের বিধিনিষেধ মেনে কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ হাইকমিশন। আর এতে সংক্রমিতও হয়েছেন দূতাবাসের প্রায় এক ডজন কর্মকর্তা-কর্মচারী।

চলমান বৈধকরণ প্রক্রিয়ায় নিবন্ধন করেও পাসপোর্ট জটিলতায় ভিসা না পাওয়ার শঙ্কায় অনেকে। অন্যদিকে সেবায় গতি আনতে হাইকমিশনের উদ্যোগে স্থানীয় পোস্ট অফিসের মাধ্যমে শুরু হয়েছে পাসপোর্ট বিতরণ। সম্প্রতি ভার্চ্যুয়াল এক সভায় ডিজিটাল পদ্ধতিতে প্রবাসীদের কাছে সেবা পৌঁছে দেয়া হচ্ছে বলে জানান, হাইকমিশনার মো. গোলাম সারওয়ার।

ভুক্তভোগীরা বলেন, চার থেকে পাঁচ মাসের আগে পাসপোর্ট নবায়ন করতে জমা দিয়েছি। কিন্তু এখনো পাওয়ার কোনো খবর নেই। এই সমস্যার কারণে আমাদের প্রতিনিয়ত সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। দালালদের টাকা দিলে তা খুব তাড়াতাড়ি পাওয়া যায়। যে পাসপোর্ট পাঁচ থেকে ছয় মাসে পাওয়া যায় না। সেই পাসপোর্ট কিভাবে দালালরা দিতে পায়।

মালয়েশিয়ার কমিউনিটি নেতা নাজমুল ইসলাম বাবুল বলেন, পাঁচ থেকে ছয় মাস লেগে যায় পাসপোর্ট পেতে। এই সমস্যার কারণে বর্তমান মালয়েশিয়ার সরকার যে সুযোগ দিচ্ছে তা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। অনেক প্রবাসী ভাইয়ের ছেলে আছেন। অনেকের আবার জেলের সাজার মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে। শুধু মাত্র পাসপোর্টের কারণে তারা বের হতে পারছে না।

মালয়েশিয়ার বাংলাদেশ হাইকমিশনার বলেন, একটি পাইলট প্রজেক্ট হাতে নিয়েছি। এর মাধ্যমে আপনাদের সকলের পাসপোর্ট পোস্ট অফিসের মাধ্যমে দিয়ে দেয়া হবে।

আরটিভি নিউজ