১৪ বছরের মেয়েকে অসামাজিক কাজে বাধ্য করায় মা-বাবা গ্রেফতার

প্রকাশিত: ৪:৩২ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ১৬, ২০২১

মেয়েকে ধর্ষণ ও দেহ ব্যবসায় বাধ্য করায় মা, বাবা ও এক সহযোগীর নামে পাবনার আটঘরিয়ায় থানায় বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা হয়েছে। এ ঘটনায় বাবা তোফিজ, মা ছাবিনা খাতুন এবং ধর্ষণ ও দেহ ব্যবসায় সহযোগীতা করার অভিযোগে বেলাল হোসেন নামের আরো এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার দেবোত্তর ইউনিয়নের শ্রীকান্তপুর পুকুরপাড়া গ্রামে।
আটঘরিয়া থানার এস আই ফারুক হোসেন জানান, উপজেলার শ্রীকান্দপুর পুকুরপাড়া গ্রামের মৃত বদর উদ্দিনের ছেলে তোফিজ ও তার স্ত্রী ছাবিনা খাতুন তাদের ১৪ বছরের মেয়েকে একই এলাকার মইন উদ্দিনের ছেলে বেলাল হোসেন (৫৫) এর যোগ সাজসে তাদের মেয়েকে দেহ ব্যবসায় বাধ্য করেন। এক পর্যায়ে ১৪ বছরের ঐ মেয়ে নিরুপায় হয়ে পালিয়ে থানা পুলিশের শরণাপন্ন হলে বৃহস্পতিবার আটঘরিয়া থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে ৯ (১)-৩০ ধারায় মামলা দায়ের হয়েছে। এই মামলার বাদী হয়েছে ধর্ষিতার নানী জায়েদা বিবি। মামলার পর পর দুপুরে পুলিশ এক অভিযান চালিয়ে বেলাল হোসেন, বাবা তোফিজ ও মা ছাবিনা খাতুনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বলেন, মামলার এক নাম্বার আসামি বেলাল হোসেন আদালতে ১৬৪ ধারায় শিকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছেন।
ইত্তেফাক