সিলেটে মহানগর যুবলীগের বিক্ষোভ মিছিল

প্রকাশিত: ১১:৫১ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৩০, ২০২০

স্টাফ রিপোর্টারঃ দেশব্যাপী কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে সিলেট মহানগর যুবলীগের উদ্যোগে সোমবার (৩০ নভেম্বর ) দুপুর ২টা সিলেট নগরীর কোর্ট পয়েন্ট থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের হয়।

মিছিলটি নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে চৌহাট্টা পয়েন্টে এক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

মিছিল শেষে আয়োজিত সমাবেশে সিলেট মহানগর যুবলীগের সভাপতি আলম খান মুক্তি বলেন, বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণের বিরোধিতা করছে ধর্মভিত্তিক কয়েকটি দল। ইসলামী আন্দোলন হুমকি দিয়েছে ভাস্কর্য নির্মাণ হলে তারা বুড়িগঙ্গায় ফেলে দেবে।

তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণ ঠেকানোর সাধ্য কারও নেই। সিলেট মহানগর যুবলীগ এদেরকে প্রতিহত করতে মাঠে থাকবে। ‘করোনা মহামারির সময়েও প্রধানমন্ত্রীর একান্ত চেষ্টায় যখন দেশ এগিয়ে যাচ্ছে তখন স্বাধীন বাংলার শত্রুরা আবার পাঁয়তারা শুরু করেছে যেন পরিস্থিতি অস্থিতিশীল করা যায়। ‘বঙ্গবন্ধুর এই বাংলায় কোনো জঙ্গি, মৌলবাদীদের স্থান নেই। জঙ্গিবাদ, মৌলবাদ ও সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা সৃষ্টিকারীদের রাজপথে থেকে প্রতিহত করবে যুবলীগ।

সিলেট মহানগর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মুশফিক জায়গীরদার বলেন, জঙ্গিবাদ, মৌলবাদ ও সন্ত্রাসবাদ এই তিনটি শব্দ বর্তমানে আমাদের কাছে অতি পরিচিত কারন এই তিনটিরই সম্মুখীন আমাদের দেশ বাংলাদেশ।  আমরা সবাই জানি যে, এই জঙ্গিবাদ ও মৌলবাদ শব্দ দুটি একে অপরের সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত কারণ মৌলবাদের সর্বোচ্চ পর্যায়কে আমরা জঙ্গিবাদ বলি। এরপর এই দুটোই হচ্ছে সন্ত্রাসমূলক কাজের অর্ন্তভুক্ত। সুতরাং কোনো রাজনৈতিক বা ধর্মীয় বা আদর্শিক উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের জন্য যেকোনো ধরনের সন্ত্রাসী বা হিংসাত্মক কর্মকান্ডকে  জঙ্গিবাদ বলে। অতিরঞ্জিত ধর্মীয় অনুভূতির কারণেও উগ্র মৌলবাদের সৃষ্টি হয় এবং সামপ্রাদায়িক দাঙ্গা সৃষ্টি হয়। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে তাদের প্রতিহত করবে যুবলীগ।

নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, কথিত ধর্ম ব্যবসায়ী নেতা মামুনুল হককে ২৪ ঘন্টার মধ্যে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানান।

বিক্ষোভ মিছিলে উপস্থিত ছিলেন সাবেক ছাত্রনেতা, সিলেট মহানগর আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ। এছাড়াও মিছিল ও সমাবেশে সিলেট মহানগর যুবলীগের  নেতৃবৃন্দ ও ২৭টি ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক সহ মহানগর যুবলীগের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।