লিডিং ইউনিভার্সিটিতে সামাজিক অবক্ষয় রোধে ভার্চ্যুয়াল সেমিনার

প্রকাশিত: ৬:৫২ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৮, ২০২০

স্টাফ রিপোর্টারঃ  লিডিং ইউনিভার্সিটির ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের উদ্যোগে ‘সামাজিক অবক্ষয় রোধে ইসলামি সংস্কৃতির ভূমিকা বিষয়ক সেমিনার ও মনোজ্ঞ ইসলামি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান’ শুক্রবার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ভার্চুয়াল এ সেমিনারে প্রধান আলোচক হিসেবে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, কুষ্টিয়ার আল-হাদিস এন্ড ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. সৈয়দ মাকসুদুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে লিডিং ইউনিভার্সিটির প্রতিষ্ঠাতা ও বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান দানবীর ড. সৈয়দ রাগীব আলী এবং সন্মানিত অতিথি হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য বনমালী ভৌমিক ও বোর্ড অব ট্রাস্টিজের সদস্য সৈয়দ আব্দুল হাই বক্তব্য রাখেন।

হযরত শাহজালাল (রহ) এর মাধ্যমে পূন্যভূমি সিলেট ইসলাম প্রচার শুরু হয়েছে উল্লেখ করে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. রাগীব আলী বলেন, ইসলামের মূলনীতি আমাদেরকে মেনে নিতে হবে, তা না হলে সমাজে বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হবে। তিনি বলেন, সামাজিক অবক্ষয় রোধে সঠিক ইসলামী শিক্ষার বিস্তার সমাজে আনতে হবে। আর এই শিক্ষা বিস্তারের লক্ষ্যেই লিডিং ইউনিভার্সিটিতে ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগ চালু করা হয়েছে। তিনি এ বিভাগের শিক্ষার্থীদের ইসলামি সংস্কৃতিতে শিক্ষিত করে সমাজের অবক্ষয় রোধে ভূমিকা রাখতে শিক্ষকদের প্রতি আহবান জানান।

সামাজিক মূল‍্যবোধ থেকে সরে গেলে সামাজিক অবক্ষয় ঘটে উল্লেখ করে প্রধান আলোচক প্রফেসর ড. সৈয়দ মাকসুদুর রহমান বলেন, সামাজিক অবক্ষয় রোধে ইসলামি সংস্কৃতির ভূমিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ইসলামি সংস্কৃতিকে বাস্তবায়িত করতে হলে ইসলামি অর্থনীতিসহ অন‍্যান‍্য বিষয়গুলোতে ইসলামি শিক্ষায় নিয়ে আসতে হবে। তিনি বলেন, আমাদের অন্তর্নিহিত চিন্তাশক্তিকে বিশোধন করতে হবে, তার সাথে আমরা বাহ‍্যিকভাবে যে কাজগুলো করছি তার মধ‍্যে সততা, দায়বদ্ধতা, ন‍্যায়-অন‍্যায় বিচার করা, কর্তব্যনিষ্ঠা, ধৈর্য্য, উদারতা, নিয়মানুবর্তিতা, শৃংখলাবোধ, অধ‍্যাবসায়, সৃজনশীলতা, দেশ প্রেম তথা মাতৃভূমির প্রতি শ্রদ্ধাবোধ জরুরী, এবং সমাজকাঠামোয় ক্ষমতা দিয়ে দায়িত্ব পালন করতে হবে। তিনি আরও বলেন, অপসংস্কৃতিকে দমন করতে হবে, মানুষের প্রতি মানবতা, ভালোবাসা, শালীনতাবোধ, নৈতিকতাবোধ, এবং ধর্মীয় জ্ঞানের অভাব হলে সমাজে অপসংস্কৃতির প্রভাব পড়বে।

লিডিং ইউনিভার্সিটির ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও ভারপ্রাপ্ত বিভাগীয় প্রধান ফজলে এলাহী মামুনের সভাপতিত্বে সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন লিডিং ইউনিভার্সিটির আধুনিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. এম. রকিব উদ্দিন, কলা ও আধুনিক ভাষা অনুষদের ডিন প্রফেসর নাসির উদ্দিন আহমেদ, বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মেজর (অব.) মো. শাহ আলম, পিএসসি এবং ইসলামিক ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ, হবিগঞ্জ এর উপ-পরিচালক মাওলানা শাহ মুহাম্মদ নজরুল ইসলাম।

ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের প্রভাষক মুহাম্মদ জিয়াউর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র ক্কুর’আন থেকে তিলাওয়াত করেন প্রাক্তন শিক্ষার্থী হাফিজ আহমেদ রবি।

দ্বিতীয় পর্বে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থী শামসুল হুদার সঞ্চালনায় হামদ, নাত, গজল, পেরোডি ,পুঁতি ও দেশাত্মবোধক গান পরিবেশন করেন বর্তমান ও সাবেক শিক্ষার্থী জুনায়েদ আহমদ, ইমাদ আহমদ রবি, মুয়াজ, আসিয়া আবদিন ইলমা, আব্দুস শুকুর, অতিথি শিল্পী হিফজুর রহমান, তাওহীদ সুফিয়ান, সুলতান আহমদ এবং শিশু শিল্পী মুনতাহা ফিরদৌসি তাহিয়া ও নাবিলা।

অনুষ্ঠানে ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থী -শিক্ষক এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।