সংবাদ সম্মেলনে সুষ্ঠ তদন্তের দাবি রায়হানের মায়ের

প্রকাশিত: ৯:৫৯ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৪, ২০২০

স্টাফ রিপোর্টারঃ রায়হান আহমদ হত্যা মামলার সকল আলামত দ্রুত সংগ্রহ করার জন্য পিবিআইর প্রতি আহবান জানিয়েছেন নিহতের মা সালমা বেগম। শনিবার দুপুরে নিজ বাসায় সংবাদ সম্মেলন করে এমন আহ্বান জানান তিনি।

সিলেটের বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে ধরে আনার পর মারা যান নগরীর আখালিয়া এলাকার রায়হান আহমদ (৩৪)। পরিবারের পক্ষ থেকে প্রথম থেকেই অভিযোগ করা হচ্ছে, নির্যাতন চালিয়ে রায়হানকে হত্যা করা হয়েছে।

এই ঘটনার প্রধান অভিযুক্ত পুলিশের বহিস্কৃত উপ পরিদর্শক (এসআই) আকবর হোসেন ভূইয়াকে গত ৯ নভেম্বর সীমান্ত এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ঘটনার পরপরই তিনি পালিয়ে ভারতে চলে যান বলে অভিযোগ রয়েছে। এরপর ১০ নভেম্বর তাকে ৭ দিনের রিমান্ডে নিয়েছে মামলার তদন্তকারী সংস্থা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

প্রধান অভিযুক্তকে গ্রেপ্তারের পর শনিবার সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন ছেলে রায়হানের মৃত্যুর পর থেকেই বিচারের দাবিতে রাজপথে থাকা সালমা বেগম।

নিজ বাড়িতে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, আটক হওয়ার পর আকবর জানিয়েছেন, উর্ধতন কর্মকর্তাদের বুদ্ধিতে তিনি পালিয়ে গিয়েছিলেন। আমরাও মনে করি রায়হান হত্যা এবং আকবরের পালিয়ে যাওয়ার সাখে আরও অনেক পুলিশ কর্মকর্তা জড়িত। রিমান্ডে আকবরকে জিজ্ঞাসাবাদের মাধ্যমে জড়িত অন্যদের চিহ্নিত করে তাদের গ্রেপ্তার করতে হবে।

রায়হান হত্যা আলামত সংগ্রহ করার দাবি জানিয়ে তিনি বলেন,  ১০ অক্টোবর রাতে রায়হানকে যখন পুলিশ ধরে নেয় তভন তার পড়নে ছিলো নীল শার্ট। অথচ পরদিন ১১ অক্টোবর সকালে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পড়ে থাকা রায়হানের মরদেহের পরণে ছিল লাল শার্ট। এছাড়া লাশ হস্তান্তরের সময় তার মোবাইল ফোনও ফিরিয়ে দেয়নি পুলিশ। রায়হান মারা যাওয়ায় একমাস পরও এর কোনটিই ফিরে পাইনি আমরা। সুষ্ঠ তদন্তের স্বার্থে তদন্তকারী সংস্থাকে এই আলামতগুলো উদ্ধার করতে হবে। নতুনা এই মামলার সুষ্ঠ তদন্ত সম্ভব হবে না।

রায়হান হত্যা মামলায় আকবর ছাড়াও আরও তিন পুলিশ সদস্যকে গ্রেপ্তারের পর রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে পিবিআই।