দক্ষিণ সুনামগঞ্জে ডুবায় মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে, নিহত ১, আহত ২

প্রকাশিত: ৪:৫০ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৫, ২০২০

স্টাফ রিপোর্টারঃ দক্ষিণ সুনামগঞ্জে ডোবায় মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে কথা-কাটাকাটির জেরে সংঘর্ষে তাইজ মিয়া নামে ১জন নিহত ও জুসেদ মিয়া ও জুনেদ মিয়া নামে ২ জন আহত হয়েছে।

নিহতের মরদেহ বর্তমানে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে, আগামী কাল ময়নাতদন্তের পরে লাশ হস্তান্তর করা হবে বলে জানান নিহতের ছোট ভাই খালেদ মিয়া।
ঘটনার বিবরণে জানা যায়- দক্ষিণ সুনামগঞ্জের দরগাহ পাশা ইউনিয়নের কাবিলাখাই গ্রামের মৃত ইসলাম উদ্দিনের ছেলে নিহত তাইজ মিয়ার মালিকানাধীন ব্যক্তিগত ডোবায় বিকেল প্রায় চারটার দিকে ৪ জন জেলে সংঘবদ্ধ হয়ে ছাঁই দিয়ে অবৈধ ভাবে মাছ ধরলে তাইজ মিয়ার চাচাতো ভাই জুসেদ মিয়া বাধা প্রদান করেন। এতে ৪ জন জেলে কাবিলাখাই গ্রামের মৃত বশির মিয়ার ছেলে রুহুল আমিন, আমরিয়া গ্রামের আনছার, শুকুর মিয়ার ছেলে কামরুজ্জামান ও নুরুজ্জামান এর সাথে কথা-কাটাকাটির এক পর্যায়ে জুসেদ মিয়ার উপর ওরা চড়াও হয়।
মোবাইলে খবর পেয়ে নিহত তাইজ মিয়া ও তার ছোট ভাই জুনেদ মিয়া ঘটনাস্থলে পৌঁছে- তাদের ব্যক্তিগত ডোবায় মাছ ধরার কারণ জানতে চাইলে ওরা ৪ জেলে তাদের উপর হামলা করে বলে সিলেট টাইমস ২৪ ডটকম কে নিশ্চিত করেন নিহতের চাচাতো ভাই আহত জুসেদ মিয়া।
এছাড়াও জুসেদ মিয়ার হাতে পায়ে আঘাতের চিহ্ন এবং জুনেদ মিয়ারও সামান্য আঘাত রয়েছে এবং আহত উভয়ই সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
পরিবারের বড় ভাইয়ের মৃত্যুতে নিহত তাইজ মিয়ার ছোট ২ ভাই খালেদ মিয়া ও জুনেদ মিয়া বারবার জ্ঞান হারাচ্ছেন।
নিহত তাইজ মিয়ার আত্মীয় স্বজন ওসমানী হাসপাতালে ভীড় করলে সেখানে শোকার্ত পরিবেশের সৃষ্টি হয়।
নিহত তাইজ মিয়ার চাচাতো ছোট ভাই জুসেদ মিয়া বলেন তাইজ ভাইকে উনার মাথার পিছনে আঘাত করলে তাৎক্ষণিকভাবে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। আমরা প্রথমে কৈতক হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন।
সন্ধ্যা ৮ টাকার দিকে ওসমানীতে নিয়ে আসলে ডাক্তার মৃত ঘোষণা করেন।