লাপাজের সেই স্টেডিয়ামে আর্জেন্টিনা

প্রকাশিত: ৯:৫৩ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১৩, ২০২০

স্পোর্টস ডেস্কঃ অনেকে মজা করে বলেন, বিশ্বকাপ ফুটবল যদি বলিভিয়ায় হতো, তাহলে চ্যাম্পিয়ন হতো তারাই। তাহলে ব্রাজিল, জার্মানি, ফ্রান্স কিংবা ইতালির মতো দলগুলো কী আঙুল চুষত? হয়তো তাই। কেন? এর পেছনে উত্তর একটাই, ‘উচ্চতা’।

বলিভিয়ায় লাতিন আমেরিকার এমন কোনো দল নেই যে সেখানে গিয়ে খাবি খায় না। আর্জেন্টিনা-ব্রাজিলের মতো দলও সেখানে গেলে হালি হালি গোল হজম করে। একটা পরিসংখ্যান দেয়া যাক, বলিভিয়ার সঙ্গে আর্জেন্টিনা হেরেছে মোট সাতবার। সব হারই বলিভিয়ার মাটিতে।

লাপাজের সেই স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার রাত ২টায় বলিভিয়ার বিরুদ্ধে মাঠে নামবে আর্জেন্টিনা। ইকুয়েডরের বিরুদ্ধে জয় দিয়ে বিশ্বকাপ বাছাই পর্ব ভালোমতো শুরু হলেও লাপাজের স্টেডিয়াম আগাম ভীতি ছড়াচ্ছে মেসিদের তনুমনে।

সমুদ্রপৃষ্ট থেকে তিন হাজার ৬০০ মিটার উঁচুতে অবস্থিত লাপাজের স্টেডিয়ামে খেলতে গেলে হিসেব উল্টে যায়। উচ্চতার জন্য সফরকারী খেলোয়াড়দের স্বাভাবিক শ্বাস-প্রশ্বাসে সমস্যা হয়। তাতে তারা নিজেদের স্বাভাবিক খেলাটা খেলতে পারেন না। তিন বছর আগে রাশিয়া বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে বলিভিয়ায় গোলশূন্য ড্র করা ব্রাজিলের তারকা ফরোয়ার্ড নেইমার মন্তব্য করেছিলেন, লাপাজে খেলাটা অমানবিক।

প্রতিকূল পরিবেশই বলিভিয়ার জন্য স্বস্তির। এর উপর দেশটির ফুটবল কোচ সিজার ফারিয়াস আবার আগাম হুমকি দিয়ে রেখেছেন। তিনি বলেন, ‘লাপাজের এরনান্দো সাইলসে খেলা অন্য শহরে খেলার মতো নয়। এরকম আর একটিও নেই।’ তিনি চান লাপাজে প্রতিপক্ষের ভোগান্তি অব্যাহত থাকুক। সুযোগ কাজে লাগিয়ে এগিয়ে যাক তার দল।